BD online income Tips

bd online income,how to earn money in bd,online income tips

 

আসেন অনলাইনে আয় করিঃ

নব্বইয়ের দশকে বিটিভির জনপ্রিয় একটা টিভি সিরিয়াল ছিলো আলিফ-লায়লা।যদি সেটা চলাকালিন সময়ে কারেন্ট চলে যেতো আমরা সাথে সাথে  দোউড়ে অন্য এলাকায় চলে যেতাম তা দেখার জন্য।

সেখানে আলাদিনের যাদুর প্রদীপ/চেরাগ নিয়ে একটা পর্ব দেখেছিলাম।আজকে হঠাত সেই কথা মনে পরে যায় তাই সেটা নিয়েই লিখবো ভাবছি।

আজ থেকে বেশ কয়েক বছর আগেও আমাদের দেশে  ফেসবুক তেমন জনপ্রিয় ছিলো না ।ধীরে ধীরে আজকে তা বিশাল সোসিয়াল নেটওয়ার্কে রুপ নেয়।অফলাইনের পাশাপাশি অনলাইনেও আমাদের ফ্রেন্ড সার্কেল আস্তে আস্তে বাড়তে থাকে।

ফেসবুকের কল্যানেই আজকাল অনেক অদেখা জিনিস দেখতে পাই আমরা।আলাদিনের এক চাচা ছিলো তিনিই জানতেন  ঐ যাদুর প্রদিপে ঘসা দিলে সেখানে এক দৈত্য এসে সব কিছু সল্ভ করে দিতে পারে। আমরাও ফ্রিল্যান্সিংকে সেই যাদুর প্রদীপের মতোই ভাবা শুরু করে দিয়েছি।

facebook,social media,youtube

এসএসসি বা এইচএসসি এক্সামের আগে আমরা দেখি ২/৩মাসের প্যাকেজে সব সাব্জেক্ট পাশ করার অফার দেয় অনেক কোচিং সেন্টার। তেমনিভাবে ফেসবুকেও অনেক এড দেখতে পাই আজকাল । ৭দিনের ফ্রিল্যান্সিং কোর্স, ৩ দিনের ফ্রিল্যান্সিং কোর্স।যেটা শেষ করলেই আপনি শুধু ২হাতে ডলার আর ডলার কামাবেন ঘরে বসে।

এইসমস্ত ট্রেইনার যারা তারা এটাকে সেই আলাদিনের যাদুর প্রদীপ বানিয়ে ফেলেছে।আসলেই কি  তারা নিজেরাও এমনভাবে  অনলাইনে আয় করতেছে। নিজেকে কি কখনো প্রশ্ন করেছেন অনলাইনে আয় কি আসলেই এত সহজ।যদি তাই হতো তাহলে তারা মানুষকে নিজেদের এত সময় নষ্ট করে কোর্স না করিয়ে সেই টাইমে নিজেরাই হাজার হাজার ডলার কামাতে পারতো।

আসেন আয় করি,অনলাইনে আয়,অনলাইনে আয় করার টিপস

How to earn money online in BD.

এতক্ষন তো  শুনলাম শুধু হতাশার কথা।আসুন এবার একটু আশার আলো খুজি।যারা ১০দিনে সিপিএ-এফিলিয়েট ট্রেনিং শেষ করে দিয়ে আপনার হাতে ডলার তুলে দেয়।আপনি সেখানে কোর্স করতে যাবার আগে তাদের অনলাইনের প্রফাইল দেখে নিতে পারেন।তারা কি পরিমান আয় করেছে এবং কিভাবে কাজ করেছে আগে তার খোজ খবর নিয়ে আপনি সেখানে কোর্স করেন।

অনলাইনে আপনি কি নিয়ে কাজ করবেন সেটা আগে ঠিক করতে হবে কাজ শুরু করার আগেই।আপনি যদি ভালো ফ্রি-হ্যান্ডে লিখতে পারেন ত্যাহলে আর্টিকেল রাইটিং এর কাজ আপনার জন্য।প্রথমেই আপনি খুব প্রফেশনাল মানের লিখতে পারবেন ব্যাপারটা তেমন নয়।লিখতে লিখতে আপনার লেখার হাত চলে আসবে।তখন দেখতে পারবেন নিজেকে কোথায় নিয়ে গেছেন আপনি।

 

 লেখালেখি  ভালো লাগেনা বা করতে পারেন না অসুবিধা নাই।এক্টু আকাআকি করুন।স্কুলের কথা ভাবুন ।বাবা ড্রয়িং খাতা কিনে দিতেন।আর স্কুলের হোম ওয়ার্কে আপনি আম,কলা,গাড়ি,মাছ ইত্যাদি কত কিছুই না একে নিয়ে যেতেন। এখন বড় হয়েছেন,চিন্তা-চেতনায় অনেক  দিক থেকে এগিয়ে আছেন তাই নয় কি?  তেমন কিছু এখনো ভালো লাগে আপনি গ্রাফিক্স এর কাজটা ভালো ভাবে শিখতে পারেন।

এটাও ভালো লাগে না।তাহলে বাদ দেন অন্য কাজে মন দেন। অফলাইনে কত মার্কেটিং এর কাজ করেছেন একটু মনে করে দেখেন তো।আপনি যেখানে কোচিং করতে যেতেন সেখানে যদি আপনার কোন ফ্রেণ্ডকে নিয়ে যেতেন স্যার কিন্তু আপনার উপর ঠিকই খুশি থাকতেন

এমন হতো আপনার কাছ থেকে স্যার কিছু টাকা কম বেতন নিতেন।যেটা দিয়ে আপনি বন্ধুদের সাথে আড্ডায় খরচ করতেন।এই যে স্যারকে আপনি একটা স্টুডেন্ট এনে দিলেন আর তিনি বিনিমিয়ে আপনাকেও কিছু দিলেন অনলাইনের ভাষায় একে বলে এফিলিয়েট মারকেটিং।

এফিলিয়েট মার্কেটিং কিভাবে শুরু করবো

আমাজন,আলি এক্সপ্রেস,থিম ফরেস্ট,হোস্টিং এর এফিলিয়েট ইত্যাদি। এরকম হাজার হাজার কোম্পানি রয়েছে অনলাইনে আপনি তাদের পণ্য সেল করে দিবেন তারা আপনাকে কিছু কমিশন দিবে সেই স্যারের মত।

অনলাইনে ইনকাম নাই বা করা যায় না এই কথা বলার অবকাশ এখন আর নাই।আপনার উপরের কোন কাজই ভালো লাগেনা বা অন্যের কাজ করতে আপনি পছন্দ করেন না।তাতেও তেমন অসুবিধা নাই।আপনি তাহলে নিজের জন্য নিজের একটা সাইট রেডি করেন।

 

সেখানে ব্লগিং করেন।গুগলের এডসেন্সের জন্য এপ্লাই করেন।এডসেন্স এপ্রুভ নাহলেও চিন্তার কিছুই নাই।অনলাইনে এমন অনেক  বিকল্প এড কোম্পানির সাথে যোগাযোগ করতে পারেন।

প্রতদিন একটু একটু সময় দেন।প্রথমে একটু একটু কষ্ট হবে সত্য।কিন্তু কিছুদিন পরে (মিনিমাম ৪-৬মাস )পরে যখন আপনার সেই সাইটাই র‍্যাংক করবে।ভিজিটর বেড়ে যাবে,ইঙ্কাম আসতে শুরু করবে দেখবেন তখন ভালো লাগা কাকে বলে।

প্রতিদিন মিনিমাম ৫-৬টা আর্টিকেলটিকে।২/৪ টা ভিডিও দেখতে পারেন ইউ্টিউবে।কিভাবে মানুষ কাজ শুরু করে তা আগে দেখুন।বুজার চেস্টা করুন।

এরপরেও না মাথায় আসলে কাছের ভালো কোন আইটি সেন্টারের খবর নিন।চেস্টা করবেন এমন কোথাও কাজ শিখতে যিনি বা যারা মার্কেট প্লেসে কাজ করতেছেন।কেননা যিনি নিজে কাজ করেন না ।তিনি আপনাকে আর কি শেখাবে ।তাই টাকাপয়সা কিছু বেশি লাগলেও হাই-প্রফাইল ফ্রিল্যান্সারদের থেকে কাজ শিখুন।

৪০% ডিস্কাউন্ট-৮০% ডিস্কাউন্ট এমন এড দেখে প্রলুব্ধ হবেন না।তারা ইউটুবের লাইভ ক্লাস দেখায় আর স্টুডেন্ট দেরকে জিজ্ঞাসা করে কার কত ডলার আয় হয়েছে।কেউ বলে ১০০$ কেউ আর বেশিও বলে থাকে।কিন্তু একটা জিনিস খেয়াল করবনেন।তারা ঠিক মত কথাই বলতে পারে না।

 

 

আরে ভাই অনলাইনে ইনকাম এতো সহজ হলে দেশে এতো বেকার থাকতো না।আপনি অনলাইনে ইনকাম করতে চান ভালো কথা।কিন্তু আলাদিনের চাচার মত যাদুর প্রদিপের কথা ভুলে যান।কাজ শিখুন।নিজেকে এক্সপারট করে  তুলুন দেখবেন অনলাইনে আসলেই আপনি ঘরে বসেই আয় করতে পারবেন।

আমাদের আরটিকেল পরে যদি আপনার একটু ভালো লাগে বা কোনো উপকার হয়ে থাকে।প্লিজ লাইক কমেন্ট শেয়ার করতে ভুলবেন না।অনলাইনে প্রতিটা টাকাই ইনকাম করতে আসলেই অনেক কস্ট করতে হবে আপনাকে সব সময় এই কথাটা আপনার মাথায় রেখেই পরে এই জগতে পা বাড়াবেন।

 

(বিঃদ্রঃ)এখানে আমি কোন প্রতিষ্ঠানের নাম নিতেছি না।আমি নিজেও ব্যাক্তিগত ভাবে অনেক জায়গায় প্রতারিত হয়েছি।তবে তাদের উপর আমার তেমন রাগ-ক্ষোভ কিছুই নেই।কেননা আমি এটা বিশ্বাস করি যে মানুষ যেভাবে চলতে চায় আল্লাহ তাকে সেভাবেই চালায়।

হয়তো আমাদের সাময়িক কিছু অসুবিধা হয়।কিন্তু তাতে থেমে থাকিনি আমরা।অনলাইনে ইঙ্কামের  যেমন শেষ নাই তেমন এখানে শেখার ও শেষ নাই।তাই এখনো শিখে যাই  অনবিরত।যদি লক্ষ্য থাকে অটুট নিশ্চয়েই দেখা হবে বিজয়ে।ভালো থাকবেন।

Faruk Hossain

About Faruk Hossain

I am a digital marketing expert.I love to work on my site. After all, day long when I finished my office I engaged to My OutsourcingPark and really that time I enjoyed so much. Just keep in touch to get newly Outsourcing Tips.

View all posts by Faruk Hossain →

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।